মুসলিম দেশগুলোতে মেয়েদের পোশাক


2017-02-25 09:24:14 111 2

মেয়েরা কি পোশাকে ঘরের বাহিরে বের হবেন তা মুসলিম বিশ্বে খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। জনসম্মুখ্যে মেয়েরা বা নারী সমাজ কি পোশাকে চলাফেরা করবে তা নিয়ে অনেক মুসলিম দেশে সংঘাতও কম হয়নি। সংস্কার, সমাজ, ধর্ম, মুক্ত বাজার, সংস্কৃতি ইত্যাদি নানা বেড়াজালের আস্টেপিস্টে মেয়েদের পোশাকে পরিবর্তন এসেছে সময়ের পরিক্রমায়। এসব নিয়ামক কখনও উশৃঙ্খল করেছে নারীদের আবার কখনও হস্তক্ষেপ করা হয়েছে তাদের স্বাধীনতায় অথবা বাধ্য করা হয়েছে ধর্মীয় গোড়ামীর মারপ্যাচে। মিশিগান বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান সম্প্রতি ৭টি মুসলিমপ্রধান দেশে একটি জরিপ পরিচালনা করে। এই ৭টি দেশের মধ্যে রয়েছে তিউনিসিয়া, মিশর, ইরাক, লেবানন, পাকিস্তান, সৌদি আরব এবং তুরস্ক। জরিপে দেখা যায় এসব দেশগুলোর মধ্যে বেশিরভাগই চায় মেয়েদের চুল সম্পূর্ণরূপে ঢাঁকা থাকবে। তবে মুখের অংশ অনাবৃত থাকতে পারে। শুধুমাত্র তুরস্ক এবং লেবাননের ক্ষেত্রে কিছুটা ভিন্ন ফলাফল পাওয়া যায়। এ দুটি দেশে মেয়েরা কিছুটা স্বাধীনভাবে চলাফেরা করতে পছন্দ করে।


The Public Posts মুসলিম দেশগুলোতে মেয়েদের পোশাক

ছবি: নেওয়াজ রাহুল ও শিশির জাহাঙ্গীর

মডেল: মেহজাবিন লোপা ও শিফা, পোশাক: স্টাইল পার্ক, মেকওভার: ওমেন্স ওয়ার্ল্ড: স্টাইলিং: আনিসুজ্জামান, উৎস: বাংলাদেশ প্রতিদিন


জরিপটি পরিচালনার জন্য প্রত্যেক নারী অংশগ্রহণকারীদেরকে একটি করে কার্ড দেয়া হয় যেখান থেকে ৬টি পছন্দের নেকাবের (মাথা ঢেঁকে রাখার কাপড়) মধ্যে কোনটি জনসম্মুখ্যে পরার জন্য সে পছন্দ করে তা জানা হয়। ৬টি অপশনের মধ্যে মাথা এবং চুল সম্পূর্ণরূপে নেকাব দিয়ে ঢেকে রাখা থেকে শুরু করে কিছুটা কম রক্ষণশীল হিজাব ব্যবস্থার উল্লেখ ছিল। এই পাঁচটি অপশনের ব্যাপ্তি ছিল #১ থেকে #৫ পর্যন্ত। এই ৫টির কোনটিই পছন্দের না হলে তার জন্য আরো একটি অপশন ছিল।

মুসলিমপ্রধান দেশের নারী অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে #৪ নং অপশনটিতেই বেশি সাড়া পেয়েছে জরিপকারী প্রতিষ্ঠানটি। অর্থ্যাৎ বেশিরভাগ মেয়েরাই জনসম্মুখ্যে পরিধান করার জন্য ড্রেস নির্বাচনের ক্ষেত্রে চুল এবং কানে সাদা রংয়ের হিজাব দিয়ে ঢেকে রাখতেই পছন্দ করেন। এই অপশনটির হার তিউনিশিয়ায় ৫৭ শতাংশ, মিশরে ৫২ শতাংশ, ৪৬শতাংশ তুরস্কে এবং ৪৪শতাংশ ইরাকে। তবে ইরাক এবং মিশরে চুল, কান ঢেঁকে রাখার জন্য কালো রংয়ের হিজাব মেয়েদের দ্বিতীয় পছন্দ। আর তুরস্কের ৩২ শতাংশ মেয়েরা মনে করে মাথার চুল ঢেকে না রাখাও এখন গ্রহণযোগ্য এবং তা প্রায় ১৫ শতাংশ মেয়েরা করেও থাকে।। লেবাননের ৪৯ শতাংশ মেয়েরাও তাই মনে করে। তবে লেবাননের জরিপে অংশগ্রনকারীদের মধ্যে ২৭ শতাংশ ছিল খ্রিষ্টান।

পাকিস্তানে প্রায় এক চতুর্থাংশ নারীদের পোশাক #৩ থেকে #২ এর মধ্যে যেখানে শুধুমাত্র চোখ অনাবৃত রেখে নেকাব পরা হয়। এছাড়া সৌদি আরবের প্রায় ৬৩ শতাংশ নারীদের পোশাক #২ এর মধ্যে।

রক্ষণশীল পোশাকের পাশাপাশি জরিপের মাধ্যমে তাদের নিজেদের পোশাক নিজেদেরই পছন্দমত পরতে পারার আশার কথাও জানান অনেকে। এই প্রবণতা সবচেয়ে বেশি তিউনিসিয়ায় (৫৬%), তুরস্ক (৫২%) এবং লেবাননে (৪৯%)। এরমধ্যে আবার বেশিরভাগ দেশের নারীরা মাথার চুল ঢেকে রাখার পক্ষপাতি না।

প্রসঙ্গ :
হিজাব মুসলিম মেয়েদের পোশাক

ফেসবুক মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Name*

Web

Email*